কাঁঠাল বিচি দিয়ে দেশী মুরগী রান্না।

কাঁঠাল বিচি দিয়ে দেশী মুরগী রান্না। এমন খুব কম মানুষই আছে যে কাঁঠাল বিচি পছন্দ করেনা। কাঁঠাল খাই বা না খাই, বিচি কিন্তু আমাদের সবার পছন্দ। কাঁঠাল বিচি অনেকভাবে আমরা খেয়ে থাকি। ছোটবেলায় আমরা কাঁঠাল বিচি ভেজে খেতাম। জ্যৈষ্ঠ আষাঢ় মাসে কাঁঠাল বিচি দিয়ে টাকি মাছ বা শোল মাছের পোনার তরকারি, আবার বর্ষাকালে বাড়িতে মেহমান মুসাফির আসলে মাঝেমধ্যে কাঁঠাল বিচি দিয়ে মুরগী রান্না, ভর্তার কথাতো বললামইনা। আহ! খেতে সে কী যে স্বাদ লাগতো। এখন বিদেশী হরেক রকমের খাবারের পাল্লায় পড়ে দেশীয় খাবার একদম ভুলেই যাচ্ছি আমরা।
সেদিন দোকানে কাঁঠাল বিচি দেখে মনে পড়ে গেল সেই কবে বিচি দিয়ে মুরগী খেয়েছিলাম। নিয়ে নিলাম দুই প্যাকেট।
প্রবাসে ব্যাচেলর ভাই-বন্ধু যারা আছেন আপনিও চাইলে রাঁধতে পারেন দেশীয় প্রিয় খাবার।

বাজার থেকে যে মুরুগী এনেছিলাম তার ওজন ছিল ১৪০০ গ্রাম। অতএব, সে হিসেবে রাঁধতে আমি যে পরিমান মশলা ব্যাবহার করেছি তা দেখে নিন।

উপকরণঃ
মুরগীর মাংস ১৪০০ গ্রাম।
তেল অর্ধেক কাপ।
বড় চপড পেঁয়াজ ৪টি।
আদা রসুন বাটা ২টেবিল চামচ।
গরম মশলা গুড়া কোয়ার্টার টেবিল চামচ।
মরিচের গুড়া ১টেবিল চামচ।
হলদি গুড়া ১টেবিল চামচ।
ধনিয়া গুড়া ১টেবিল চামচ।
জিরা গুড়া ১টেবিল চামচ।
কারি পাউডার ১টেবিল চামচ (অপশনাল)।
লবন স্বাদ মতো তবে আমি ১টেবিল চামচ দিয়েছি।
পিলড প্লাম টমেটো ৪০০ গ্রাম টিনের অর্ধেক টিন। (অপশনাল)।
কাঁচামরিচ ১০-১২টি। (অপশনাল)

কিভাবে রাঁধবেনঃ-

আধাকাপ তেল এবং আদা রসুন কিউব।

চপড পেঁয়াজ ৪টি।

লবন ১চামচ।

গরম মশল্লা কোয়ার্টার চামচ।

মরিচের গুড়া ১চামচ।

ধনিয়া গুড়া ১চামচ।

১চামচ কারি পাওডার (অপশনাল)

জিরা গুড়া ১চামচ।

হলদি গুড়া ১চামচ।

উপরের সবগুলো উপকরণ একসাথে পাতিলে মিক্স করে ফুল আগুনে বসিয়ে দিন ২০মিনিটের জন্য। অবশ্য খেয়াল রাখতে হবে এবং মাঝেমাঝে নাড়তে হবে।

২০মিনিট হয়ে গেলে আগুন মিডিয়াম করে রেখে দিন আরো ১০-১৫ মিনিটের জন্য। (টাইমিং নির্ভর করবে আপনার আগুনের পাওয়ারের উপর)

এবার পাতিলের পানি শুকিয়ে উপরে তেল ভেসে আসলে কাঁঠালের বিচি ছেড়ে দিয়ে আরো অন্তত ১০মিনিট কষান একদম স্লো আগুনে।

১০ মিনিট কষানোর পর এক আধা লিটার অথবা আপনার আন্দাজমতো পানি দিয়ে ফুল আগুনে ঢেকে রাখুন ১০ মিনিটের জন্য।

পানি কমে ঘন হয়ে আসলে কাঁচামরিচ ও ধনেপাতা দিয়ে আগুন বন্ধ করে দিন। (দুঃখিত বাসায় কাঁচামরিচ না থাকায় দেয়া হয়নি) ব্যাস হয়ে গেলো কাঁঠাল বিচি দিয়ে দেশীয় মুরগী রান্না।

এবার ডিশে সাজিয়ে গরম গরম ভাতের সাথে সার্ভ করুন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s